করোনার জিনোম সিকোয়েন্স উন্মোচন করলো ঢাবি

ডিবিবি ডিবিবি

ঢাবি প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৪:৪৬ অপরাহ্ণ, মে ২৪, ২০২০ | আপডেট: ৪:৪৬:অপরাহ্ণ, মে ২৪, ২০২০ |

প্রানঘাতী করোনার প্রকোপে নাজেহাল সমগ্র বিশ্ব। প্রতিনিয়ত মৃত্যুর মিছিলে যুক্ত হচ্ছে হাজার হাজার মানুষ।আর,এই মরণঘাতী ভাইরাসের মোকাবেলায় রণাঙ্গনে নেমে পড়েছে সমগ্র বিশ্বের বিজ্ঞানীরা।
 
করোনাভাইরাসের গতিপ্রকৃতি, উৎস, জিনগত বৈশিষ্ট্যের পরিবর্তন ও ভাইরাসটির বিরুদ্ধে কার্যকর ওষুধ ও ভ্যাকসিন তৈরির জন্য এর জিন রহস্যউন্মোচন করা জরুরী। বিশ্বব্যাপী বিজ্ঞানীরা লেগে আছে কোভিড-১৯ এর পরিবর্তনশীল জিনোম সিকোয়েন্স এর উদঘাটনে।বাংলাদেশও এই ব্যাপারে পিছিয়ে নেই। 
 দেশে প্রথম ১২ই মে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান চাইল্ড হেলথ রিসার্চ ফাউন্ডেশন অণুজীববিজ্ঞানী সেঁজুতি সাহার নেতৃত্বে করোনাভাইরাসের জিন নকশা উন্মোচন করে।
গত ২১ই মে বাংলাদেশ পাট গবেষণা ইনস্টিটিউট এবং চট্টগ্রামের ভেটেরনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় জানায় বাংলাদেশে সংক্রমিত করোনাভাইরাসের সাতটি নমুনার পূর্ণাঙ্গ জিনোম সিকোয়েন্সিং উন্মোচন করার কথা।
বিশ্বব্যাপী মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া করোনার জিনোম সিকোয়েন্সিং করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চতর বিজ্ঞান গবেষণা কেন্দ্রে স্থাপিত করোনা পরীক্ষার ল্যাবরেটরিতে করা গবেষণায় করোনাভাইরাসের পাঁচটি নমুনার পূর্ণাঙ্গ জিনোম সিকোয়েন্স আবিষ্কার করার কথা জানানো হয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।গবেষক দলটির নেতৃত্বে রয়েছেন জিন প্রকৌশল ও জীবপ্রযুক্তি বিভাগের অধ্যাপক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের করোনাভাইরাস রেসপন্স টেকনিক্যাল কমিটির আহ্বায়ক শরীফ আখতারুজ্জামান।
করোনাভাইরাসের জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ের এই ডেটা (তথ্য) ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাসের আন্তর্জাতিক তথ্যভান্ডার ‘গ্লোবাল ইনিশিয়েটিভ অন শেয়ারিং অল ইনফ্লুয়েঞ্জা ডেটা (জিআইএসএআইডি)’–তে গৃহীত হয়েছে বলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।পর্যাপ্ত অর্থ সংস্থান হলে পরবর্তীতে আরো বিস্তর ভাবে গবেষণা চালানো হবে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।