কুয়েতে রিমান্ড শেষে জেলহাজতে পাপুল

প্রকাশিত: ১০:৪৪ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৮, ২০২০ | আপডেট: ১০:৪৪:পূর্বাহ্ণ, জুন ১৮, ২০২০ |

অর্থপাচার ও মানবপাচারের অভিযোগে টানা আট দিনের রিমান্ড শেষে কুয়েতে বাংলাদেশের সংসদ সদস্য কাজী শহীদ ইসলাম পাপুলকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়। মঙ্গলবার তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে কুয়েতের প্রসিকিউশন বিভাগ।

পাপুলকে আটকের পর থেকে বিষয়টি নিয়ে বেশ নড়েচড়ে বসেছে কুয়েত সরকার। পাপুলসহ তার সঙ্গে আর কারা সম্পৃক্ত তা তদন্তে নেমেছে কুয়েত কর্তৃপক্ষ। এছাড়া কুয়েত সরকার তাদের এক উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করেছে।

বুধবার আরব টাইমসের খবরে বলা হয়, কুয়েতের সমাজকল্যাণ ও অর্থনীতিবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মরিয়ম আল আকিল সরকারের জনশক্তি কর্তৃপক্ষের এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্তের আদেশ জারি করেছেন।

কুয়েতে মানবপাচারের বিরুদ্ধে চলমান তদন্তের স্বার্থে পাবলিক প্রসিকিউশন ওই কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করার সুপারিশ করে। জনস্বার্থের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে কুয়েত সরকার জনশক্তি দফতরের ওই কর্মকর্তাকে ৩ মাসের জন্য বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নেয়। তবে ওই কর্মকর্তার নাম প্রকাশ করেনি গণমাধ্যমটি।