চট্টগ্রাম কলেজে সংঘর্ষ : ছাত্রলীগের ১২ জনের বিরুদ্ধে পাল্টা মামলা

ডিবিবি

ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:১৪ অপরাহ্ণ, জুন ১৭, ২০২১ | আপডেট: ৯:১৪:অপরাহ্ণ, জুন ১৭, ২০২১ |

চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি মাহমুদুল করিমসহ (৩০) ১২ জনের নাম উল্লেখ করে পাল্টা মামলা দায়ের করা হয়েছে। ওই মামলায় ৭-৮ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) বিকেলে কলেজ ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক অনুসারী মো. আনসার (২২) বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলায় আসামিরা হলেন- মাহমুদুল করিম (৩০), আবদুল্লাহ আল সাইমুন (২৩), জাহিদ হাসান সাইমন (২৮), সাফায়েত হোসেন রাজু (২৩), মোস্তফা আমান (২৩), কায়েস মাহমুদ (২৪), শেফায়ুতুল করীম (১৯), কাইয়ুম (১৮), ওয়াহিদুর রহমান সুজন (২৫), মেহরাজ সিদ্দিকী পাভেল (২০), আবু তোরাফ (২২) ও তৌহিদুল করিম ইমন (২৩)।

এর আগে বুধবার (১৬ জুন) দিবাগত রাতে কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি অনুসারী আবদুল্লাহ আল সাইমুন (২৩) বাদি হয়ে যুবলীগ নেতা নুর মোস্তফা টিনুসহ ১২ জনের নাম উল্লেখ একটি মামলা দায়ের করেন।

ওই মামলার আসামিরা হলেন- নুর মোস্তফা টিনু (৩৮), আমির উদ্দিন ওরফে আমির (৩২), জিয়াউদ্দিন আরমান (২৪), সৌরভ উদ্দিন বাপ্পা (২৪), সিরাজুল ইসলাম ওরফে তোরাব (২২), মো. মহিউদ্দিন ওরফে সৌরভ (১৯), মনির উদ্দিন ওরফে রেহান (২৪), আবুল কালাম (২৪), আনসার উদ্দিন (২৩), মন্টি চৌধুরী (৩২), ইমন হোসেন (২৪) ও মো. আব্দুল্লাহ (২৩)।

চকবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আলমগীর পাল্টা মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘চট্টগ্রাম কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় উভয়পক্ষ পাল্টাপাল্টি মামলা দায়ের করেছে। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি। ইতোমধ্যে দুই আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদেরকে আজ (বৃহস্পতিবার) আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।’

জানা গেছে, গতকাল (বুধবার) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল করিমের সমর্থক ও সম্পাদক সুভাষ মল্লিকের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে দুই কর্মী আহত হন। ঘটনার পর কলেজ কর্তৃপক্ষ হোস্টেল গেট সিলগালা করে দেয়।