ডাকসুর পদ নিয়ে মুখোমুখি বক্তব্যে নুর-রাব্বানী

প্রকাশিত: ৮:১৩ পূর্বাহ্ণ, জুন ২৩, ২০২০ | আপডেট: ৮:১৩:পূর্বাহ্ণ, জুন ২৩, ২০২০ |

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) নির্ধারিত মেয়াদের অতিরিক্ত এক মিনিটও পদে থাকতে চায় না বলে জানিয়েছেন ডাকসুর সাধারণ সম্পাদক (জিএস) গোলাম রাব্বানী। অন্যদিকে আগামী নির্বাচন পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করতে চান ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুর। সোমবার(২২ জুন) বিকেলে ফেসবুকের ভেরিফাইড আইডিতে এক স্ট্যাটাসে ডাকসুর বিষয়ে নিজের বক্তব্য স্পষ্ট করেন গোলাম রাব্বানী।

ফেসবুক স্ট্যাটাসে গোলাম রাব্বানী বলেছেন, “ডাকসুর বিষয়ে আমার বক্তব্য একদম স্পষ্ট। নির্ধারিত মেয়াদের অতিরিক্ত ১ মিনিটও পদে থাকতে চাই না। করোনা দুর্যোগকালীন উদ্ভুত পরিস্থিতিতে যেহেতু আমাদের ৩৬৫ দিনের বৈধ মেয়াদের আগেই অর্থাৎ ১৮ মার্চ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কার্যক্রম বন্ধ। তাই আমাদের অসমাপ্ত কাজ, বিশেষ করে, মাস্টার প্লান বাস্তবায়নে সহায়তা এবং ডাকসুর শিক্ষার্থী সহায়তা ফান্ডে আমার ব্যক্তিগত কন্টিনজেন্সি ফান্ডের অর্থসহ ডাকসুর অব্যবহৃত বাজেটের টাকা হস্তান্তরের মাধ্যমে অধিক সংখ্যক শিক্ষার্থীকে মানবিক সহায়তা প্রদান করতে চাই।”

তিনি আরও বলেন, “আর অবশ্যই চাই, ডাকসু নির্বাচনের ধারাবাহিকতা বজায় থাকুক। সেক্ষেত্রে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ামাত্র বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে পরবর্তী নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করতে হবে। ২৮ বছরের অচলায়তন ভেঙে সচল হওয়া ডাকসুকে আর অচল দেখতে চাই না। এটুকু শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে আমাদের যৌক্তিক দাবি। সম্মানিত উপাচার্য মহোদয় ডাকসুর কমিটি ভেঙ্গে দিয়েও যদি উক্ত দাবি মেনে নেন, আমার কোন আপত্তি নেই”

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডাকসুর সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক বলছেন, গঠনতন্ত্রে পরবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠিত না হওয়া পর্যন্ত স্বপদে থাকার সুযোগ রয়েছে। তাই আগামী নির্বাচন পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করতে চান তিনি। অন্যদিকে ডাকসুর সভাপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বলছেন, গঠনতন্ত্রের বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই।

উল্লেখ্য,দীর্ঘ ২৮ বছর পর ২০১৯ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। শিক্ষার্থীদের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত প্রতিনিধিদের এই সংসদের মেয়াদ চলতি বছরের ২২ মার্চ এক বছর পূর্ণ হয়। তবে এই সময়ের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত না হওয়ায় মেয়াদ ৯০ দিন বৃদ্ধি করা হয়। সেই মেয়াদ বৃদ্ধি আজ সোমবার (২২ জুন) শেষ হচ্ছে।