নওগাঁয় ঝোপ থেকে মেয়ে নবজাতক উদ্ধার

প্রকাশিত: ৬:২০ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২০ | আপডেট: ৬:২০:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২০ |

নওগাঁর মহাদেবপুরে পরিত্যক্ত বাড়ির ঝোপের মধ্য থেকে ভোরে এক নবজাতক মেয়ে শিশুকে উদ্ধার করা হয়েছে। শিশুটিকে স্থানীয় জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে চিকিৎসা শেষে এক দম্পতির হেফাজতে রাখা হয়েছে। শিশুটিকে দত্তক নিতে অনেকেই ভিড় করছেন সেখানে ।

ফজর নামাজ পড়তে মসজিদে যাওয়ার পথে শিশুর কান্নার শব্দে থমকে যান হুমায়ূন কবির। পরে পরিত্যক্ত একটি বাড়ির ঝোপ ঝাড়ে গিয়ে দেখতে পান নবজাতক শিশুটিকে। রাতভর কান্নায় অসুস্থ শিশুটিকে উদ্ধার করে স্থানীয় চেয়ারম্যানের কাছে নিয়ে যান তিনি। নওগাঁর মহাদেবপুর মাতাজী হাটে নব জাতক শিশু উদ্ধারের পর অনেকেই দত্তক নিতে ভিড় করছেন ।

হুমায়ূন কবির জানান, সকালে ঘেরে যাওয়ার সময় বাচ্চার আওয়াজ শুনতে পাই। পরে গিয়ে ঝোপ থেকে বাচ্চাটিকে উদ্ধার করি।

একদিনের শিশুটি রাত ভর বৃষ্টি আর কাদা পানিতে অনেকটা অসুস্থ হয়ে পড়ে। শিশুটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে স্থানীয় একটি পরিবার দেখভাল করা দায়িত্ব নিয়েছে ।

পরিবারটি জানায়, শিশুকে নিয়ে এসে দুধ খাওয়ানো হয়েছে। সেই সাথে একটি ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে।

প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে শিশুটির শারীরিক অবস্থা ভাল। শিশুটিকে দত্তক নিয়ে লালন পালন করতে চান চান এ চিকিৎসক।

নওগাঁর মাতাজী হাট ডা. মাহফুজুর রহমান বলেন, শিশুটির কোন সমস্যা নেই। তার অবস্থা ভালো। আমরা শিশুকে দত্তক নিতে চাই।

তবে আইনি পক্রিয়ার মাধ্যমে শিশুটিকে যোগ্য পরিবারে প্রদান করতে প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান মহাদেবপুরে ইগাঁ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. মুনজুর আলম।

তিনি বলেন, আমার কাছে ৯-১০ জন লোক ফোন দিয়েছে বাচ্চাটিকে দত্তক নেয়ার জন্য। আমি বলেছি, আইনগত প্রসেস ছাড়া বাচ্চাটিকে দত্তক দেয়া সম্ভব না। বর্তমানে কন্যা শিশুটি সুস্থ রয়েছে। তার নাম রাখা হয়েছ ফা‌তেমা বুসরা।