নাজমুলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল সেই ঢাবি ছাত্রীর:ভিপি নুর

ডিবিবি

ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:৩০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৭, ২০২০ | আপডেট: ৫:৩০:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৭, ২০২০ |

ধর্ষণের অভিযোগে অনশনরত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের সেই ছাত্রীর সাথে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের অব্যাহতিপ্রাপ্ত আহবায়ক হাসান আল মামুনের কোনো সম্পর্ক ছিলো না বলে দাবি করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সদ্য সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর। শনিবার (১৭ অক্টোবর) গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে এ দাবি করেন তিনি।

নুর বলেন, আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করা ঢাবির সেই ছাত্রীর সাথে মূলত হাসানের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ডিপার্টমেন্টের ছোট বোন হিসেবে মামুনের সাথে তার হাই-হ্যালো সম্পর্ক ছিল। নাজমুলের সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ের কথা চলছিল বলে শুনেছি। মূলত এটা একটি রাজনৈতিক মামলা। আমাদের রাজনৈতিক অবস্থান নষ্ট করার জন্য এ মামলা করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, মেয়েটি গত ৩ জানুয়ারি ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে মামলায় উল্লেখ করেছে। কিন্তু ৫ জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় সারাদেশ উত্তাল ছিল। তখন তিনি কেন অভিযোগ করেননি? তখন অভিযোগ করলে মামলা আরও স্ট্রং হতো। যখন অভিযোগ করেছে তাও ছয় মাস পর। ছয় মাস পর ধর্ষণের মতো একটি অভিযোগের সত্যতা পাওয়া অনেক কঠিন। মেয়েটির করা মামলা দুটি পুরোপুরি রাজনৈতিক। রাজনৈতিক না হলে দুটি মামলার ১ নম্বর আসামি গ্রেফতার না করে অন্যদের গ্রেফতার করে রাজনৈতিক ফায়দা লুটছে। আমার মনে হয় বর্তমানে পুলিশ কোনো নিরপেক্ষ তদন্ত করতে পারে না। এজন্য বিচার বিভাগীয় বা বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরপেক্ষ ব্যক্তিদের নিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হোক।

প্রসঙ্গত, গত ২১ ও ২৩ সেপ্টেম্বর রাজধানীর লালবাগ ও কোতোয়ালি থানায় ধর্ষণ, অপহরণ এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চরিত্র হননের অভিযোগে দুটি মামলা করেন ওই শিক্ষার্থী। মামলায় ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরসহ বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের ছয় নেতাকর্মীকে আসামী করা হয়। উভয় মামলায় নুরকে ধর্ষণে সহায়তাকারী হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।