শপিং ব্যাগ আর মিষ্টির কার্টন তৈরি করে স্বাবলম্বী লাবনী-শাহীন পরিবার

ডিবিবি ডিবিবি

মাদারিপুর প্রতিনিধিঃ

প্রকাশিত: ৮:৪২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯ | আপডেট: ৮:৪২:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯ |

শপিং ব্যাগ আর মিষ্টির কার্টন তৈরি করে জীবিকা নির্বাহ করছেন শিবচরের লাবনী ও তার স্বামী শাহীন পাটোয়ারী। কার্টন তৈরিকে পেশা হিসেবে নিয়ে দূর করেছেন পারিবারিক দারিদ্র্য।

দুই বছর আগে শিবচর বাজারের পৌর মার্কেটে একটি দোকান ভাড়া নিয়ে কাপড়ের শপিং ব্যাগ বানাতে শুরু করেন তারা। পরবর্তীতে চাহিদা বাড়ায় ব্যাগের পাশাপাশি মিষ্টির কার্টন বানানো শুরু করেন। মাত্র এক বছরের ব্যবধানে তাদের ব্যবসা বেশ বড় হয়ে যায়। পরবর্তীতে গড়ে তুলেছেন শিবচর ইউনিয়নের চরশ্যামাইল গ্রামের নিজ বাড়িতে কারখানা। বর্তমানে এ কারখানায় ১০টি মেশিন এবং ৮ জন কর্মচারী নিয়ে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন এ দম্পতি ।

শাহীন পাটোয়ারী জানান, বর্তমানে কাজের অনেক চাপ। তাছাড়া দুজন কারিগর ছুটিতে থাকায় কাজের ব্যস্ততা বেড়েছে। বর্তমানে তাদের খাওয়ারও সময় নেই।

লাবনী জানান, তাদের তৈরি কাপড়ের ব্যাগ ও কার্টন জেলার চারটি উপজেলাসহ পাশ্ববর্তী ফরিদপুর, গোপালগঞ্জ, বরিশাল ও শরীয়তপুর জেলায় বিক্রি হয়। দোকান মালিকদের চাহিদামতো লেভেল লাগিয়ে তারা ব্যাগ ও কার্টন তৈরি করেন। ব্যাগ তৈরির কাপড়, আঠা, কাগজ, রঙ, কালি, পিনসহ যাবতীয় উপকরণ ঢাকা থেকে সংগ্রহ করা হয়।প্রতিটি শপিং ব্যাগ তৈরি করতে খরচ হয় ৭-৮ টাকা। আর কার্টন তৈরিতে খরচ হয় ৮-৯ টাকা। আর প্রতিটি ব্যাগ বিক্রি হয় ১০ টাকায় এবং কার্টন ১১-১২ টাকায়। প্রতি মাসে তারা ৫৫-৬০ হাজার শপিং ব্যাগ ও কার্টন তৈরি করেন।

তিনি আরও বলেন, টানাপোড়েন আর অভাবের সংসারে এক সময় খুব কষ্ট করে চলতেন। স্বামী-সন্তান নিয়ে এখন বেশ সুখেই আছেন তিনি।